আফগানিস্তানের জন্য শত কোটি ডলার সহায়তার প্রতিশ্রুতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আফগানিস্তানের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য ১০০ কোটি ডলারেরও বেশি আর্থিক সহায়তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে দাতারা। এক প্রতিবেদনে এমনটাই জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল- জাজিরা।

২০২১ সালের ১৫ আগস্ট তালেবান ক্ষমতায় আসার পর দেশটিতে বিদেশি সাহায্য প্রায় বন্ধ হয়ে পড়ে। অন্যদিকে আফগান সরকারের বিপুল পরিমাণ তহবিল জব্দ করে যুক্তরাষ্ট্র। অর্থনৈতিক সংকটে বাড়তে থাকে ক্ষুধার্ত মানুষের সংখ্যা। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আফগানিস্তানে বিপর্যয়কর পরিস্থিতির ব্যাপারে হুঁশিয়ার করে দেয় জাতিসংঘ। ওই হুঁশিয়ারের পর সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) এই অর্থ সহায়তার ঘোষণা আসে।

সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় জাতিসংঘের উদ্যোগে আয়োজিত এক দাতা সম্মেলন থেকে এই অর্থ সহায়তার ঘোষণা আসে। তালেবান শাসিত আফগানিস্তানে বড় ধরনের মানবিক বিপর্যয় এড়াতে এর আয়োজন করা হয়। সম্মেলন শেষে উল্লেখযোগ্য দাতাদের মধ্যে ফ্রান্স ১১ কোটি ৮০ লাখ ডলার এবং যুক্তরাষ্ট্র ৬ কোটি ৪০ লাখ ডলার সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

সম্মেলনে জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, আফগানিস্তানের মানুষ টানা কয়েক দশক ধরে যুদ্ধ আর নিরাপত্তাহীনতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। এখন তারা কার্যত সবচেয়ে কঠিন সময় পার করছে। তাদের এখন বেঁচে থাকার রসদ প্রয়োজন। দেশটিতে মৌলিক অনেক অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড এই মুহূর্তে বন্ধ রয়েছে।

আরও পড়ুনঃ  সৌদিতে করোনায় ৯৮০ বাংলাদেশির মৃত্যু, কমেছে প্রাদুর্ভাব

এর আগে, গত ৮ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানের জন্য ৩১ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা করে চীন। এই সহায়তার মধ্যে থাকবে খাবার, শীতকালের জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী এবং কোভিড-১৯ এর টিকা।

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই বলেছেন, এই সহায়তা যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিকে পুনর্গঠনে সাহায্য করবে।

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সংবাদ সারাবেলা