এক দিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু ৬৬ জন সংক্রমণেও রেকর্ড

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ দেখা দেওয়ার পর একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষ মারা গেছে গেলো চব্বিশ ঘন্টায়। গত একদিনে মৃতের এইসংখ্যা ৬৬ জন। একইসময়ে সংক্রমিত হয়েছেন আরও ৭২১৩জন।

|| সারাবেলা প্রতিবেদন ||

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ দেখা দেওয়ার পর একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষ মারা গেছে গেলো চব্বিশ ঘন্টায়। গত একদিনে মৃতের এইসংখ্যা ৬৬ জন। একইসময়ে সংক্রমিত হয়েছেন আরও ৭২১৩জন। মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৯ হাজার ৩৮৪ জন। আর সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ লাখ ৫১ হাজার ৬৫২ জনে।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন এমন আরও ২ হাজার ৯৬৯ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন গত এক দিনে। তাতে এ পর্যন্ত সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ৫ লাখ ৫৮ হাজার ৩৮৩ জন হয়েছে।

বাংলাদেশে গত বছর ৮ই মার্চ করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ার এক বছর পর গত সপ্তাহে প্রথমবারের মত এক দিনে পাঁচ হাজারের বেশি নতুন রোগী শনাক্তের খবর আসে। তার মধ্য দিয়ে দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২৯শে মার্চ ছয় লাখ ছাড়িয়ে যায়।

তিন দিনের মাথায় গত বৃহস্পতিবার দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৬ হাজার ছাড়িয়ে যায়। মাঝে শনিবার দৈনিক শনক্তি রোগী ৬ হাজারের নিচে থাকলেও রোববার তা নতুন রেকর্ডে পৌঁছায়। সেদিন শনাক্ত হয়েছিল ৭ হাজার ৮৭ জন। সোমবারও ৭ হাজার ৭৫ জনের মধ্যে করোনভাইরাস শনাক্ত হয়।

আরও পড়ুনঃ  আল জাজিরার প্রতিবেদনে ক্ষুব্ধ সরকার ও সেনাসদর

এ নিয়ে টানা তিনদিন ৭ হাজারের বেশি মানুষের মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ল।

প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর গত বছরের ১৮ই মার্চ দেশে করোনাভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছিল সরকার। এ বছর ৩১শে মার্চ তা নয় হাজার ছাড়িয়ে যায়। গতবছর ৩০শে জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।

মঙ্গলবার ৬৬ জনের মৃত্যু দেশে একদিনে করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যায় সর্বোচ্চ।

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সংবাদ সারাবেলা