অর্ধলক্ষে ‘সংযোগ : কানেক্টিং পিপল’

|| সারাবেলা প্রতিবেদন ||

ফেসবুকভিত্তিক অনলাইন সোশ্যাল ওয়ার্কিং প্ল্যাটফর্ম ‘সংযোগ : কানেক্টিং পিপল’ এর ৫০ হাজার (অর্ধলক্ষ) সদস্য অতিক্রম করেছে। বুধবার ৭ই এপ্রিল সকালে ৫০ হাজার সদস্যের পরিবার অর্জন করে সংগঠনটি। সংযোগের এই অগ্রযাত্রায় সবাইকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানায় তারা ।

২০২০ সালের মার্চের কথা । চারদিকে যখন করোনার ভয়াবহতা। স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রীর অপ্রতুলতা। মাস্ক নেই। পিপিই নেই। দরিদ্র মানুষের ঘরে খাবার নেই। এমন পরিস্থিতিতে সৃষ্টি হয় ‘সংযোগ : কানেক্টিং পিপল’ ফেসবুক গ্রুপ। প্রতিষ্ঠার পরে করোনা বাস্তবতায় দেশের প্রায় একশত হাসপাতালে প্রায় চার হাজার মেডিকেল গাউন, ১০ হাজার মাস্ক ও দুই হাজার বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণের কাজ করে সংযোগ পরিবার।

এর মধ্যে আঘাত হানে আম্পান। আম্পানে ভেঙে যাওয়া মানুষের ঘর, করোনায় না খেতে পাওয়া অসংখ্য মানুষের জন্য খাবার, লকডাউন আর কোভিডে চাকুরি হারানো মানুষের চাকুরির ব্যবস্থা করে দেয়া, বেতন না পাওয়া নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের জন্য আর্থিক সহায়তা নিয়ে পাশে দাঁড়ায় সংযোগ কানেক্টিং পিপল।


বাড়তে থাকে করোনার অভিঘাত। নোয়াখালিতে সংযোগ পরিবারের সবাইকে নিয়ে তৈরি হয় আইসিইউ। খুলনা ডায়াবেটিক হাসপাতাল ও সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজে সংযোগের পক্ষে দেয়া হয় হাই ফ্লু ন্যাজাল ক্যানুলা। শ্বাসকষ্টে, অক্সিজেনের অভাবে যাতে করোনা রোগী মারা না যায়, সেজন্য সংযোগ চালু করে অক্সিজেন সিলিন্ডার সংযোজন কর্মসূচী। করোনায় চাকুরি হারানো মানুষের জন্য চাকুরি খুঁজে দেয়ার পাশাপাশি স্বাবলম্বী কর্মসূচী হাতে নেয় সংযোগ। প্রান্তিক নারী উদ্যোক্তাদের পাশে দাঁড়াতে শুরু হয়েছে সংযুক্তা কর্মসূচী, যেখানে নারীরা বিভিন্ন প্রশিক্ষণ সেবার পাশাপাশি নিজেদের মার্কেট এক্সেস তৈরিতেও সহায়তা পেয়ে থাকেন।

আরও পড়ুনঃ  চিকিৎসকদের সুরক্ষাপোশাক দিলো জিয়া ফাউন্ডেশন ও ড্যাব


করোনায় ঘরবন্দি শিশুদের মানসিক স্বাস্থ্য সুরক্ষার পাশাপাশি শিশুদের মাঝে দেশপ্রেম, সৃষ্টিশীল প্রতিভা বিকাশে সংযোগের মাধ্যমে সংযোগ বিজয় অলিম্পয়াড ২০২০, অমর একুশে ২০২১ ও মহান স্বাধীনতা দিবস প্রতিযোগিতা আয়োজন করে সংযোগ। দেশ ও দেশের বাইরে থেকে প্রায় দুই হাজার শিশু এই কার্যক্রমে অংশ নেয়। অন্যান্য কার্যক্রমের পাশাপাশি করোনা তীব্রতর হওয়ায় সম্প্রতি সংযোগ ঢাকা ও ঢাকার বাইরের বিভিন্ন জেলায় সংযোগ অক্সিজেন সেবা সহায়তা ও ব্লাড ও প্লাজমা সাপোর্ট দিয়ে যাচ্ছে দেশের মানুষকে।

সংযোগের এখন প্রায় ৮০টির অধিক অক্সিজেন সিলিন্ডার ও ১৫টির মতো অক্সিজেন কনসেনট্রেটর মেশিন ঢাকাসহ কয়েকটি জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীদের চব্বিশ ঘন্টা অক্সিজেন সেবা সরবরাহ করছে। এছাড়া অসহায় মানুষ যাতে বিনা চিকিৎসায় মারা না যায়, সেজন্য সংযোগ ‘সূবাহ জাহান-সংযোগ মেডিকেল সাপোর্ট ইনেশিয়েটিভ’ শুরু করেছে। যেখানে অসহায় রোগীদের অর্থসহায়তা জোগাড় করে দেয়ার মাধ্যমে চিকিৎসা সেবা দেয়ার কাজটি চলমান আছে।

সংযোগ: কানেক্টিং পিপলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা প্রকৌশলী আহমেদ জাভেদ বলেন, ” কৃতজ্ঞতা সেই সব মানবিক মানুষকে, যারা সংযোগের বিভিন্ন কার্যক্রমে এগিয়ে এসেছে, মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। ধন্যবাদ সংযোগের সেই সব নেপথ্যে নায়কদের, যারা দিন রাত সংযোগের কাজ করে যাচ্ছেন। এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন সংযোগকে। বাংলাদেশকে। ভালোবাসা আর প্রণতি গ্রহণ করুন।”

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সংবাদ সারাবেলা