আদালতের রায়ে ৫৪ জন স্ত্রী ফিরে পেলেন তাদের স্বামী

|| সারাবেলা প্রতিনিধি, (হাওরাঞ্চল) সুনামগঞ্জ ||

সুনামগঞ্জে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়ের করা মামলার ৫৪ জন স্বামীকে কারাগারে না পাঠিয়ে তাদের নিজ নিজ স্ত্রীর কাছে ফিরিয়ে দিয়েছেন আদালত।

সোমবার ২২শে ফেব্রুয়ারি দুপুরে সুনামগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো জাকির হোসেন আলাদা ৫৪টি মামলা আপোস নিষ্পত্তি করেন।

তবে অন্যান্য মামলায় ১১ জন স্বামীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। রায় ঘোষনার পর আদালত প্রাঙ্গনে স্বামী ও স্ত্রীদেরকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।

আদালত সূত্রে জানা যায়,  জেলার বিভিন্ন উপজেলার ৬৫ জন নারী তাদের স্বামীদের বিরুদ্ধে যৌতুক ও নির্যাতনের অভিযোগ এনে আদালত ও থানায় মামলা করেছিলেন। দীর্ঘদিন ধরে এই মামলাগুলোর বিচার কাজ চলছিল। স্বামীরা কারাগারে থাকায় সন্তানদের নিয়ে অনেকটা কষ্টে ছিলেন স্ত্রীরা। অনেকেই আবার মামলার কারণে জায়গা-জমি ও ঘরবাড়ি বিক্রি করে নিঃশ্ব হয়ে আশ্রয় নিয়েছেন অন্যের বাড়িতে। সংসার থেকে বিতাড়িত হয়ে ছোট ছোট সন্তান নিয়ে ওই নারীদের জীবন হয়ে ওঠে দুবির্ সহ। যার কারণে

সবার কষ্টের কথা জানতে পেরে বিচারক সন্তানদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে ৫৪টি পরিবারের স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে পুর্নমিলনের ব্যবস্থা করে দেন। আর ১১টি পরিবারের নির্যাতিত স্ত্রীরা সাক্ষী দ্বারা তাদের ১১জন স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমান করায় তাদেরকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ  মাদারীপুর পৌর নির্বাচনে আবারও মেয়র হলেন খালিদ হোসেন

সুনামগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের পিপি এডভোকেট নান্টু রায় বলেন , শান্তিপূর্ণ সমাজ নির্মাণে এই রায় ৫৪টি পরিবারকে বিশৃঙ্খলা থেকে মুক্তি দিয়েছে। এই রায় প্রশংসার দাবি রাখে। বিচারক মোঃ জাকির হোসেন এনিয়ে মোট ১০১টি পরিবারকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করেছেন। বিচারকের রায়ে বাদী-বিবাদীসহ তাদের স্বজনরা সন্তুষ্ট।

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সংবাদ সারাবেলা