বুয়েট, ঢাবিসহ অন্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা মে জুনে

|| সারাবেলা প্রতিনিধি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ||

বুয়েট ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের অধিকাংশ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ হয়েছে। বুধবার সব বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সংগঠন বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের এক ভার্চুয়াল সভায় এসব তারিখ নির্ধারিত হয়। প্রসঙ্গত করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে এবার পরীক্ষা ছাড়াই শিক্ষার্থিদের উৎরে দেয়া হয় এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থিদের। তারপরও ফল ঘোষণা হয় দেরিতে, যার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তি পরীক্ষাও কয়েক মাস পিছিয়ে গেছে।

বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের সভাপতি চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) উপাচার্য অধ্যাপক মোহাম্মদ রফিকুল আলম জানান, আগামী ২১, ২২, ২৭ ও ২৮ মে এবং ৫ জুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা হবে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামী ৬ জুন থেকে ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে, ২০শে জুনের মধ্যে সব ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শেষ হবে।

প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ১০ই জুন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ভর্তি পরীক্ষা হবে। আর রুয়েট, চুয়েট ও কুয়েট গুচ্ছ পদ্ধতিতে ১২ই জুন ভর্তি পরীক্ষা নেবে।

গুচ্ছ পদ্ধতিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়সহ ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা ১৯ জুন থেকে শুরু করার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে। ১৯ ও ২৬শে জুন এবং ৩ ও ১০ই জুলাই তিনটি ইউনিটের পরীক্ষা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুনঃ  মানিকগঞ্জে তেরশ্রী গণহত্যা দিবস পালিত

গুচ্ছ পদ্ধতিতে আগামী ২৯শে মে দেশের সাতটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এবং কৃষি শিক্ষা প্রাধান্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটিতে ৪ থেকে ৫ই জুন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অ্যাভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৭শে জুন, টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৮ই জুন এবং বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের ভর্তি পরীক্ষা হবে ২৬ ও ২৭শে ফেব্রুয়ারি।

মেডিকেল কলেজগুলোর এমবিবিএসের ভর্তি পরীক্ষা হবে ২রা এপ্রিল, আর ডেন্টালের পরীক্ষা হবে ৩০শে এপ্রিল।

তবে রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করতে পারেনি।

অধ্যাপক রফিকুল আলম বলেন, “উপাচার্যরা আলোচনার মাধ্যমে এসব তারিখ নির্ধারণ করেছেন। পরীক্ষার নিয়ম-কানুন ও সার্বিক দিক নির্দেশনা স্ব স্ব বিশ্ববিদ্যালয় বা যারা গুচ্ছ পদ্ধতি পরিচালনা করছেন, তারা তা নির্ধারণ করবেন।”

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সংবাদ সারাবেলা