গোলাম শফিকের কাব্যসৃজন …‘শুক্রবার’

শুক্রবার, তোমাকে জাগরুক রাখার জন্য মনে
আজ কতো অনাবশ্যক কাপড় কাচলাম দেখো।
শুক্রবার, তুমি এলেই বাজার ফেরতা আমার হাতে
লেগে থাকতো মাছের আঁশটে গন্ধ।
আর থলের ভেতর থেকে উঁকি দেয়া পুঁইয়ের ডগা
কম্পনে কম্পনে পথকেই কুর্নিশ জানাতো।

এখন প্রতি হপ্তায় তুমি কোন অলক্ষিত পথ দিয়ে আসো
আবার চলে যাও
টের পাওয়ার আগেই মনে হয়
পড়শু কি তড়শুদিনই আবার আসবার সময় হয়ে এলো।
অদৃশ্য খুদে দৈত্যের ভয় ও ভ্রুকুটি
আমাদের সংসারের পঞ্জিকার পাতা খামছে ধরেছে।
এখন শনি আর বৃহস্পতি জড়াজড়ি করে
অমঙ্গলের সুতোয় সেলাই করলে ভাগ্যের কাঁথা
আমাদের বৃহস্পতি আর ওঠেনা তুঙ্গে।
শুক্রবার, তুমি এলে গ্রামে গড়া এ বাংলার
কতো আঙিনায় মেহেদী গাছগুলো তিরতির কাঁপতো
ছায়াচিত্রের গানের সাথে নেচে নেচে উদিত হতো আমাদের সূর্য,
সব কাজ শুক্রবারের জন্য জমিয়ে রাখা এ জাতি এখন বেকার।

শুক্রবার, একদা আমার মসজিদের পথেও
কাঁটা দিয়ে রেখেছিল এই অদেখা দানব
আমি উপাসনালয়ে না যেতে যেতে, একান্ত নিরবে প্রভুকে ডেকে
হৃদয়টাই বানালাম এক প্রার্থনার গৃহ।

 

আরও পড়ুনঃ  বিদ্যাসাগরের দ্বি-শত জন্মবার্ষিকীতে চার খন্ডের রচনাবলী

Leave a Comment

Your email address will not be published.

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সংবাদ সারাবেলা